ঢাকা ১২:০৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ঈশ্বরদীতে ছাত্রলীগ ও বিএনপির ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া,গুলিবর্ষণ ও ককটেল বিস্ফোরণ

ঈশ্বরদী (পাবনা) প্রতিনিধি:
  • আপডেট সময় : ০৪:০২:৪২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ ডিসেম্বর ২০২৩ ৭৬ বার পঠিত

ঈশ^রদী শহরের পিয়ারপুর এলাকায় নৌকার প্রচারণার সময় বিএনপি’র বাঁধা প্রদান এবং গুলি করার অভিযোগ করেছে পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি আবীর হাসান শৈশব। মঙ্গলবার (২৬ ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে দশটার দিকে শহরের পিয়ারপুর এলাকায় ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া,কয়েক রাউন্ড গুলিবর্ষণ ও ৩টি ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে।তবে হতাহতের কোন খবর পাওয়া যায়নি।
পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি আবীর হাসান শৈশব জানান,সকালে পিয়ারপুর এলাকায় ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা নৌকা মার্কার প্রচারণা চালাচ্ছিল। বিএনপি’র লোকজন এসময় ওই এলাকায় ভোটবিরোধী লিফলেট বিতরণ করছিল। একপর্যায়ে উভয় গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া শুরু হলে বিএনপি’র লোকজন পালিয়ে যায়। পরে তারা প্রস্তুতি নিয়ে পিয়ারপুরে ছাত্রলীগ অফিসে হামলা চালায়। এসময় তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে কয়েক রাউন্ড গুলিবর্ষণ এবং তিনটি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায় তারা।
এবিষয়ে বিএনপি ও অংগসংগঠনের নেতাদের সাথে ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তাদের পাওয়া যায়নি।
থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) মনিরুল ইসলাম বলেন, পিয়ারপুর এলাকায় বিএনপি’র লোকজন ভোটবিরোধী লিফলেট বিতরণ করছিল। এসময় ছাত্রলীগ নৌকার প্রচারণা চালাচ্ছিল। একপর্যায়ে উভয়ের মধ্যে ধাওয়া ও পাল্টাধাওয়া, গুলিবর্ষণ এবং ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। অনাকাঙ্খিত ঘটনা প্রতিরোধে পুলিশ ব্যাপক তৎপর রয়েছে। এঘটনায় থানায় মামলা দায়ের হবে বলে জানান তিনি।
ঘটনার পর এলাকায় আতংক বিরাজ করছে। যুবলীগ ও ছাত্রলীগের উদ্যোগে ওই এলাকায় দফায় দফায় মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।

ট্যাগস :

ঈশ্বরদীতে ছাত্রলীগ ও বিএনপির ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া,গুলিবর্ষণ ও ককটেল বিস্ফোরণ

আপডেট সময় : ০৪:০২:৪২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ ডিসেম্বর ২০২৩

ঈশ^রদী শহরের পিয়ারপুর এলাকায় নৌকার প্রচারণার সময় বিএনপি’র বাঁধা প্রদান এবং গুলি করার অভিযোগ করেছে পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি আবীর হাসান শৈশব। মঙ্গলবার (২৬ ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে দশটার দিকে শহরের পিয়ারপুর এলাকায় ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া,কয়েক রাউন্ড গুলিবর্ষণ ও ৩টি ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে।তবে হতাহতের কোন খবর পাওয়া যায়নি।
পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি আবীর হাসান শৈশব জানান,সকালে পিয়ারপুর এলাকায় ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা নৌকা মার্কার প্রচারণা চালাচ্ছিল। বিএনপি’র লোকজন এসময় ওই এলাকায় ভোটবিরোধী লিফলেট বিতরণ করছিল। একপর্যায়ে উভয় গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া শুরু হলে বিএনপি’র লোকজন পালিয়ে যায়। পরে তারা প্রস্তুতি নিয়ে পিয়ারপুরে ছাত্রলীগ অফিসে হামলা চালায়। এসময় তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে কয়েক রাউন্ড গুলিবর্ষণ এবং তিনটি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায় তারা।
এবিষয়ে বিএনপি ও অংগসংগঠনের নেতাদের সাথে ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তাদের পাওয়া যায়নি।
থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) মনিরুল ইসলাম বলেন, পিয়ারপুর এলাকায় বিএনপি’র লোকজন ভোটবিরোধী লিফলেট বিতরণ করছিল। এসময় ছাত্রলীগ নৌকার প্রচারণা চালাচ্ছিল। একপর্যায়ে উভয়ের মধ্যে ধাওয়া ও পাল্টাধাওয়া, গুলিবর্ষণ এবং ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। অনাকাঙ্খিত ঘটনা প্রতিরোধে পুলিশ ব্যাপক তৎপর রয়েছে। এঘটনায় থানায় মামলা দায়ের হবে বলে জানান তিনি।
ঘটনার পর এলাকায় আতংক বিরাজ করছে। যুবলীগ ও ছাত্রলীগের উদ্যোগে ওই এলাকায় দফায় দফায় মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।