ঢাকা ০৫:২০ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চাটমোহরের টেঙ্গরজানি স্কুলের শিক্ষক কামরুল সাময়িক বরখাস্ত

বড়াল প্রতিবেদক:
  • আপডেট সময় : ০৬:০১:১১ অপরাহ্ন, শনিবার, ২ মার্চ ২০২৪ ২৭৮ বার পঠিত

একটি হত্যা মামলায় পুলিশ কর্তৃক গ্রেফতার হয়ে জেলহাজতে থাকায় পাবনার চাটমোহর উপজেলার টেঙ্গরজানি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক কামরুল হাসান ওরফে খোকন (৪০) কে চাকুরি থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। পাবনা জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সিদ্দিক মোহাম্মদ ইউসুফ রেজা গত ১১ ফেব্রুয়ারি তাঁর দপ্তরের ৩৮.০১৭৬০০.০০০.২৭.২৪.২৯৯/৯ নং স্মারক পত্রে বরখাস্তের এই আদেশ দেন।
উল্লেখ্য,চাটমোহর উপজেলার পাশর্^ডাঙ্গা ইউনিয়নের বড়গুয়াখড়া গ্রামে গত ১ ফেব্রুয়ারি দিবাগত রাতে সাড়ে ৮টার দিকে মাদ্রাসার কমিটি গঠন নিয়ে বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষের মারপিটে আব্দুল আলীম সরকার (৫২) নামে এক ব্যক্তি নিহত হন। তিনি স্থানীয় মালেকা ইছাহক দারুল আকরাম ইবতেদায়ী মাদ্রাসার সভাপতি ছিলেন। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ একই গ্রামের মৃত আরজান সরদারের ছেলে আফসার আলী মাস্টার (৬৫) ও তার ছেলে টেঙ্গরজানি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক কামরুল হাসান ওরফে খোকন মাস্টার (৪০) কে গ্রেফতার করে।
অভিযোগ,আঃ আলীম সরকার নিজ বাড়িতে ফেরার পথে বড় গুয়াখড়া গ্রামের মাজার শরীফ গেটের সামনে পৌঁছালে পূর্বপরিকল্পিতভাবে অভিযুক্ত আফসার আলী মাস্টার ও তার ছেলে কামরুল হাসান ওরফে খোকন মাস্টারসহ তাদের সহযোগীরা আলীমকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজসহ মারপিট করে। ঘটনাস্থলেই আঃ আলীম মারা যান। এ ঘটনায় নিহতের ভাই গোলজার হোসেন বাদি হয়ে আফসার আলী মাস্টার ও তার ছেলে কামরুল হাসান ওরফে খোকন মাস্টারসহ ৭ জনের নাম উলে¬খ করে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলা নম্বর ৩। পুলিশ বাবা ও ছেলেকে আদারতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠিয়েছে। তারা বর্তমানে কারাগারে আছেন। এ অবস্থায় সহকারি শিক্ষক কামরুল হাসানকে চাকুরি থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

ট্যাগস :

চাটমোহরের টেঙ্গরজানি স্কুলের শিক্ষক কামরুল সাময়িক বরখাস্ত

আপডেট সময় : ০৬:০১:১১ অপরাহ্ন, শনিবার, ২ মার্চ ২০২৪

একটি হত্যা মামলায় পুলিশ কর্তৃক গ্রেফতার হয়ে জেলহাজতে থাকায় পাবনার চাটমোহর উপজেলার টেঙ্গরজানি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক কামরুল হাসান ওরফে খোকন (৪০) কে চাকুরি থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। পাবনা জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সিদ্দিক মোহাম্মদ ইউসুফ রেজা গত ১১ ফেব্রুয়ারি তাঁর দপ্তরের ৩৮.০১৭৬০০.০০০.২৭.২৪.২৯৯/৯ নং স্মারক পত্রে বরখাস্তের এই আদেশ দেন।
উল্লেখ্য,চাটমোহর উপজেলার পাশর্^ডাঙ্গা ইউনিয়নের বড়গুয়াখড়া গ্রামে গত ১ ফেব্রুয়ারি দিবাগত রাতে সাড়ে ৮টার দিকে মাদ্রাসার কমিটি গঠন নিয়ে বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষের মারপিটে আব্দুল আলীম সরকার (৫২) নামে এক ব্যক্তি নিহত হন। তিনি স্থানীয় মালেকা ইছাহক দারুল আকরাম ইবতেদায়ী মাদ্রাসার সভাপতি ছিলেন। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ একই গ্রামের মৃত আরজান সরদারের ছেলে আফসার আলী মাস্টার (৬৫) ও তার ছেলে টেঙ্গরজানি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক কামরুল হাসান ওরফে খোকন মাস্টার (৪০) কে গ্রেফতার করে।
অভিযোগ,আঃ আলীম সরকার নিজ বাড়িতে ফেরার পথে বড় গুয়াখড়া গ্রামের মাজার শরীফ গেটের সামনে পৌঁছালে পূর্বপরিকল্পিতভাবে অভিযুক্ত আফসার আলী মাস্টার ও তার ছেলে কামরুল হাসান ওরফে খোকন মাস্টারসহ তাদের সহযোগীরা আলীমকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজসহ মারপিট করে। ঘটনাস্থলেই আঃ আলীম মারা যান। এ ঘটনায় নিহতের ভাই গোলজার হোসেন বাদি হয়ে আফসার আলী মাস্টার ও তার ছেলে কামরুল হাসান ওরফে খোকন মাস্টারসহ ৭ জনের নাম উলে¬খ করে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলা নম্বর ৩। পুলিশ বাবা ও ছেলেকে আদারতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠিয়েছে। তারা বর্তমানে কারাগারে আছেন। এ অবস্থায় সহকারি শিক্ষক কামরুল হাসানকে চাকুরি থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।