ঢাকা ১২:০২ অপরাহ্ন, বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চাটমোহরের বাজারে অপরিপক্ক তরমুজ,দামও চড়া

বড়াল প্রতিবেদক:
  • আপডেট সময় : ০৪:১৫:০০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১২ মার্চ ২০২৪ ১৬৩ বার পঠিত

শুরু হয়েছে পবিত্র রমজান মাস। সিয়াম সাধনার এই মাসকে ঘিরে বাজারে উঠেছে রসালো ফল তরমুজ। তবে বাজারে যে তরমুজ উঠেছে,তা অপরিপক্ক। এখনো তরমুজের মৌসুম পুরোপুরি শুরু হয়নি। কিন্তু দাম অনেকটাই চড়া। মঙ্গলবার (১২ মার্চ) চাটমোহর পুরাতন বাজারে গিয়ে দেখা যায় অন্যান্য ফলের সাথে তরমুজও বিক্রি হচ্ছে। প্রতি কেজি তরমুজ বিক্রি হচ্ছে ৭০ টাকা করে। এসকল তরমুজ কাটার পর কোনটা লাল আবার কোনটা সাদা বের হচ্ছে। অনেককেই তরমুজ কিনতে দেখা গেছে। তরমুজ কিনতে আসা শিক্ষক মোহাম্মদ আলী বললেল,রোজা ইফতারিতে তরমুজের চাহিদা আছে। প্রথম রোজা,তাই একটা তরমুজ কিনলাম। চাটমোহর পৌরসভার কাউন্সিলর কামরুল হাসান মিন্টু বললেন,দাম বেশি হলেও রোজার কারণে বাড়ির জন্য একটা তরমুজ কিনলাম। বিক্রেতারা জানান,আড়তে তরমুজের দাম বেশি,তাই খুচরা দামও কম নয়। একেকটি তরমুজের ওজন ৩ থেকে ৭ কেজি পর্যন্ত। আরো ১৫ দিন পরে পরিপক্ক তরমুজ মিলবে বলে জানান বিক্রেতারা।
এদিকে শুধু তরমুজের দামই নয়। খেজুরের দাম বেড়ে হয়েছে দ্বিগুণ। আঙ্গুরের দামও একদিনের ব্যবধানে বেড়েছে। রমজানে ইফতারের অন্যতম অনুষঙ্গখেজুর। রমজানে বাজারে খেজুরের চাহিদা বেড়ে যায়। বাজারে জাত ও মানভেদৈ নির্ধারণ হয় খেজুরের দাম। তবে এবার সব ধরণের খেজুরের দামই চড়া। মঙ্গলবার (১২ মার্চ) চাটমোহরের বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা গেল,সর্বনি¤œ মানের খেজুরের কেজি ৩০০ টাকা। খোলঅ বাজারে ৩০০ থেকে ১২০০ টাকা কেজি খেজুর বক্রি হচ্ছে। খেজুরের দাম নিয়ে ক্রেতা-বিক্রেতাদের মধ্যে বাকবিতন্ডাও হচ্ছে।
অপরদিকে গত সোমবার (১১ মার্চ) বাজারে যে আঙ্গুরের কেজি ছিল ১৭০ থেকে ১৮০ টাকা। মঙ্গলবার (১২ মার্চ) সেই আঙ্গুরের দাম ৩০০ টাকা কেজি। এনিয়েও ক্রেতাদের মধ্যে ক্ষোভ দেখা গেছে।
সোমবার (১১ মার্চ) উপজেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভায় বাজারে নিত্যপণ্যের দাম বাড়ার বিষয়ে বাজার মনিটরিং করার কথা বলেন সদস্যরা। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ রেদুয়ানুল হালিম এ ব্যাপারে তদারকি করার আশ^াসও দিয়েছেন।

ট্যাগস :

চাটমোহরের বাজারে অপরিপক্ক তরমুজ,দামও চড়া

আপডেট সময় : ০৪:১৫:০০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১২ মার্চ ২০২৪

শুরু হয়েছে পবিত্র রমজান মাস। সিয়াম সাধনার এই মাসকে ঘিরে বাজারে উঠেছে রসালো ফল তরমুজ। তবে বাজারে যে তরমুজ উঠেছে,তা অপরিপক্ক। এখনো তরমুজের মৌসুম পুরোপুরি শুরু হয়নি। কিন্তু দাম অনেকটাই চড়া। মঙ্গলবার (১২ মার্চ) চাটমোহর পুরাতন বাজারে গিয়ে দেখা যায় অন্যান্য ফলের সাথে তরমুজও বিক্রি হচ্ছে। প্রতি কেজি তরমুজ বিক্রি হচ্ছে ৭০ টাকা করে। এসকল তরমুজ কাটার পর কোনটা লাল আবার কোনটা সাদা বের হচ্ছে। অনেককেই তরমুজ কিনতে দেখা গেছে। তরমুজ কিনতে আসা শিক্ষক মোহাম্মদ আলী বললেল,রোজা ইফতারিতে তরমুজের চাহিদা আছে। প্রথম রোজা,তাই একটা তরমুজ কিনলাম। চাটমোহর পৌরসভার কাউন্সিলর কামরুল হাসান মিন্টু বললেন,দাম বেশি হলেও রোজার কারণে বাড়ির জন্য একটা তরমুজ কিনলাম। বিক্রেতারা জানান,আড়তে তরমুজের দাম বেশি,তাই খুচরা দামও কম নয়। একেকটি তরমুজের ওজন ৩ থেকে ৭ কেজি পর্যন্ত। আরো ১৫ দিন পরে পরিপক্ক তরমুজ মিলবে বলে জানান বিক্রেতারা।
এদিকে শুধু তরমুজের দামই নয়। খেজুরের দাম বেড়ে হয়েছে দ্বিগুণ। আঙ্গুরের দামও একদিনের ব্যবধানে বেড়েছে। রমজানে ইফতারের অন্যতম অনুষঙ্গখেজুর। রমজানে বাজারে খেজুরের চাহিদা বেড়ে যায়। বাজারে জাত ও মানভেদৈ নির্ধারণ হয় খেজুরের দাম। তবে এবার সব ধরণের খেজুরের দামই চড়া। মঙ্গলবার (১২ মার্চ) চাটমোহরের বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা গেল,সর্বনি¤œ মানের খেজুরের কেজি ৩০০ টাকা। খোলঅ বাজারে ৩০০ থেকে ১২০০ টাকা কেজি খেজুর বক্রি হচ্ছে। খেজুরের দাম নিয়ে ক্রেতা-বিক্রেতাদের মধ্যে বাকবিতন্ডাও হচ্ছে।
অপরদিকে গত সোমবার (১১ মার্চ) বাজারে যে আঙ্গুরের কেজি ছিল ১৭০ থেকে ১৮০ টাকা। মঙ্গলবার (১২ মার্চ) সেই আঙ্গুরের দাম ৩০০ টাকা কেজি। এনিয়েও ক্রেতাদের মধ্যে ক্ষোভ দেখা গেছে।
সোমবার (১১ মার্চ) উপজেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভায় বাজারে নিত্যপণ্যের দাম বাড়ার বিষয়ে বাজার মনিটরিং করার কথা বলেন সদস্যরা। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ রেদুয়ানুল হালিম এ ব্যাপারে তদারকি করার আশ^াসও দিয়েছেন।