ঢাকা ১১:২৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ৯ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চাটমোহরের হান্ডিয়ালে এক কিশোরীকে অপহরণের অভিযোগে থানায় মামলা

বড়াল প্রতিবেদক:
  • আপডেট সময় : ০৪:৪৬:৫১ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪ ৯৮ বার পঠিত

প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় পাবনার চাটমোহর উপজেলার হান্ডিয়াল ইউনিয়নের পাকপাড়া গ্রাম থেকে এক কিশোরীকে অপহরণ করা হয় মর্মে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে চাটমোহর থানায় মামলা দায়ের করেছেন অপহৃত মেয়েটির পিতা কিশোর লাল চৌধুরী। শুক্রবার (১৪ জুন) সন্ধ্যায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ৭ (৩০) ধারায় এই মামলা দায়ের করা হয়। মামলা নং ১৬। মামলায় অপহরণকারী পাকপাড়া গ্রামের সুলতান মাহমুদের ছেলে মুনিয়াদীঘি কারিহরী কৃষি কলেজের কম্পিউটার অপারেটর শফিকুল ইসলামসহ ৪ জনকে বিবাদী করা হয়েছে।।
থানায় দায়ের করা অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে,পাকপাড়া গ্রামের কিশোর লাল চৌধুরীর মেয়ে (১৬) ২০২৪ সালের এসএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছে। কিশোর লাল চৌধুরী মুনয়াদিঘী কারিগরী কৃষি কলেজের নৈশ প্রহরী। প্রধান আসামি শফিকুল ইসলাম একই কলেজের কম্পিউটার অপারেটর। এই সুবাদে শফিকুল কিশোর লাল চৌধুরীর মেয়ের সাথে সখ্যতা গড়ে তোলেন। এক পর্যায়ে প্রেমের প্রস্তাব ও বিয়ের প্রলোভন দেন। কিন্তু মেয়েটি তাতে রাজি না হওয়ায় গত ৫ জুন দুপুরে পাকপাড়া আলিম মাদ্রাসার কাছ থেকে তাকে অপহরণ করা হয়। এ ব্যাপারে ওই দিনই হান্ডিয়াল পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে বিষয়টি জানানো হয়। ঘটনার দু’দিন পরে পুলিশ ওই মেয়েকে উদ্ধার করে পিতা কাছে দেন। এ ব্যাপারে স্থানীয়ভাবে মীমাংসার জন্য বৈঠক বসে বলে এলাকাবাসী জানান। বৈঠকে মোটা টাকা দাবি করা হয়। কিন্তু তাতে শফিকুলের স্বজনরা আপত্তি করলে মীমাংসা বৈঠক ভেস্তে যায়। অবশেষে গত ১৪ জুন সন্ধ্যায় ওই কিশোরীর পিতা চাটমোহর থানায় মামলা করেন।
চাটমোহর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ সেলিম রেজা জানান,অপহরণের পর মেয়েটিকে পুলিশ উদ্ধার করেছে। এ বিষয়ে ওই মেয়ের পিতা শুক্রবার চাটমোহর থানায় ৪ জনকে বিবাদী করে মামলা করেছে। আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

ট্যাগস :

চাটমোহরের হান্ডিয়ালে এক কিশোরীকে অপহরণের অভিযোগে থানায় মামলা

আপডেট সময় : ০৪:৪৬:৫১ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪

প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় পাবনার চাটমোহর উপজেলার হান্ডিয়াল ইউনিয়নের পাকপাড়া গ্রাম থেকে এক কিশোরীকে অপহরণ করা হয় মর্মে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে চাটমোহর থানায় মামলা দায়ের করেছেন অপহৃত মেয়েটির পিতা কিশোর লাল চৌধুরী। শুক্রবার (১৪ জুন) সন্ধ্যায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ৭ (৩০) ধারায় এই মামলা দায়ের করা হয়। মামলা নং ১৬। মামলায় অপহরণকারী পাকপাড়া গ্রামের সুলতান মাহমুদের ছেলে মুনিয়াদীঘি কারিহরী কৃষি কলেজের কম্পিউটার অপারেটর শফিকুল ইসলামসহ ৪ জনকে বিবাদী করা হয়েছে।।
থানায় দায়ের করা অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে,পাকপাড়া গ্রামের কিশোর লাল চৌধুরীর মেয়ে (১৬) ২০২৪ সালের এসএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছে। কিশোর লাল চৌধুরী মুনয়াদিঘী কারিগরী কৃষি কলেজের নৈশ প্রহরী। প্রধান আসামি শফিকুল ইসলাম একই কলেজের কম্পিউটার অপারেটর। এই সুবাদে শফিকুল কিশোর লাল চৌধুরীর মেয়ের সাথে সখ্যতা গড়ে তোলেন। এক পর্যায়ে প্রেমের প্রস্তাব ও বিয়ের প্রলোভন দেন। কিন্তু মেয়েটি তাতে রাজি না হওয়ায় গত ৫ জুন দুপুরে পাকপাড়া আলিম মাদ্রাসার কাছ থেকে তাকে অপহরণ করা হয়। এ ব্যাপারে ওই দিনই হান্ডিয়াল পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে বিষয়টি জানানো হয়। ঘটনার দু’দিন পরে পুলিশ ওই মেয়েকে উদ্ধার করে পিতা কাছে দেন। এ ব্যাপারে স্থানীয়ভাবে মীমাংসার জন্য বৈঠক বসে বলে এলাকাবাসী জানান। বৈঠকে মোটা টাকা দাবি করা হয়। কিন্তু তাতে শফিকুলের স্বজনরা আপত্তি করলে মীমাংসা বৈঠক ভেস্তে যায়। অবশেষে গত ১৪ জুন সন্ধ্যায় ওই কিশোরীর পিতা চাটমোহর থানায় মামলা করেন।
চাটমোহর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ সেলিম রেজা জানান,অপহরণের পর মেয়েটিকে পুলিশ উদ্ধার করেছে। এ বিষয়ে ওই মেয়ের পিতা শুক্রবার চাটমোহর থানায় ৪ জনকে বিবাদী করে মামলা করেছে। আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।