ঢাকা ০১:২১ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ৯ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চাটমোহরে অবৈধ সুঁতিবাঁধ অপসারণের দাবি

বিশেষ প্রতিনিধি:
  • আপডেট সময় : ০৩:৫১:৩৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ৬৩ বার পঠিত

পাবনার চাটমোহর উপজেলার হরিপুর ইউনিয়নের আক্কাসের জোলায় স্থাপিত অবৈধ সুঁতিবাঁধ
অপসারণের দাবি জানিয়েছেন আশপাশের ৬টি গ্রামের মৎস্যজীবি ও বাসিন্দারা। এলাকার প্রভাবশালী
ব্যক্তিরা এই জোলায় সুঁতিবাঁধ স্থাপন করে মাছ ধরছে বলে অভিযোগ।
বড়াল পাড়ের ধুলাউরি,আগশোয়াইল,টলাটলিপাড়া,রামনগর,দোলং ও বোঁথর গ্রামের মৎস্যজীবি ও
বাসিন্দারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট লিখিত অভিযোগ করে বড়াল নদীর সাথে পাশর্^বর্তী
বিলে সংযোগ স্থাপনকারী আক্কাসের জোলার অবৈধ সুঁতিবাঁধ অপসারণের দাবি জানিয়েছেন।
গতকাল বৃহস্পতিবার (২১ সেপ্টেম্বর) দুপুরে এলাকায় অর্ধ শতাধিক মৎস্যজীবি উপজেলা পরিষদের
চত্বরে সমাবেত হয়।তারা জানান,বড়াল নদীতে মাছ ধরে জীবিকা নির্বাহ করেন এলাকার
মৎস্যজিবীরা। বিলের পানি বড়াল নদী দিয়ে বের হওয়ার সময় বড়ালে মাছ প্রবেশ করে। কিন্তু
বিল ও নদীর সংযোগ আক্কাসের জোলায় এলাকার প্রভাবশালী কতিপয় ব্যক্তি সুঁতিবাঁধ স্থাপন
করেছেন। তারা অবিলম্বে সুঁতিবাঁধ অপসারণের দাবি জানিয়েছেন।
এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ রেদুয়ানুল হালিম জানান,অভিযোগ পেয়েছি। শীঘ্রই ব্যবস্থা
নেওয়া হচ্ছে।

ট্যাগস :

চাটমোহরে অবৈধ সুঁতিবাঁধ অপসারণের দাবি

আপডেট সময় : ০৩:৫১:৩৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২৩

পাবনার চাটমোহর উপজেলার হরিপুর ইউনিয়নের আক্কাসের জোলায় স্থাপিত অবৈধ সুঁতিবাঁধ
অপসারণের দাবি জানিয়েছেন আশপাশের ৬টি গ্রামের মৎস্যজীবি ও বাসিন্দারা। এলাকার প্রভাবশালী
ব্যক্তিরা এই জোলায় সুঁতিবাঁধ স্থাপন করে মাছ ধরছে বলে অভিযোগ।
বড়াল পাড়ের ধুলাউরি,আগশোয়াইল,টলাটলিপাড়া,রামনগর,দোলং ও বোঁথর গ্রামের মৎস্যজীবি ও
বাসিন্দারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট লিখিত অভিযোগ করে বড়াল নদীর সাথে পাশর্^বর্তী
বিলে সংযোগ স্থাপনকারী আক্কাসের জোলার অবৈধ সুঁতিবাঁধ অপসারণের দাবি জানিয়েছেন।
গতকাল বৃহস্পতিবার (২১ সেপ্টেম্বর) দুপুরে এলাকায় অর্ধ শতাধিক মৎস্যজীবি উপজেলা পরিষদের
চত্বরে সমাবেত হয়।তারা জানান,বড়াল নদীতে মাছ ধরে জীবিকা নির্বাহ করেন এলাকার
মৎস্যজিবীরা। বিলের পানি বড়াল নদী দিয়ে বের হওয়ার সময় বড়ালে মাছ প্রবেশ করে। কিন্তু
বিল ও নদীর সংযোগ আক্কাসের জোলায় এলাকার প্রভাবশালী কতিপয় ব্যক্তি সুঁতিবাঁধ স্থাপন
করেছেন। তারা অবিলম্বে সুঁতিবাঁধ অপসারণের দাবি জানিয়েছেন।
এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ রেদুয়ানুল হালিম জানান,অভিযোগ পেয়েছি। শীঘ্রই ব্যবস্থা
নেওয়া হচ্ছে।