ঢাকা ১০:৪৫ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চাটমোহরে জনপ্রিয় হচ্ছে পোকা দমনে আলোক ফাঁদ

বিশেষ প্রতিনিধি:
  • আপডেট সময় : ০৬:৫৭:০৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ২ অক্টোবর ২০২৩ ১৮৬ বার পঠিত

পাবনার চাটমোহরে ফসলের ক্ষতিকর পোকা দমনে আলোর ফাঁদ জনপ্রিয় হচ্ছে। উপজেলার বিভিন্ন এলাকার কৃষক আলোর ফাঁদ স্থাপন করে উপকারী ও অপকারী পোকা সনাক্ত করতে পারছেন। দমন করা হচ্ছে অপকারী পোকা। উপজেলার মথুরাপুর ইউনিয়নের ভাদরা ব্লকে সমলয়ে আমন ধানের জমিতে উপকারী এবং অপকারী পোকার উপস্থিতি শনাক্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থাপনা গ্রহনে কৃষকদের পরামর্শ প্রদান করতে আলোক ফাঁদ স্থাপন করা হয়েছে। এসময় আলোক ফাঁদে আসা ক্ষতিকর ও উপকারী পোকা কৃষকের চিনিয়ে দিয়ে কি ব্যবস্থাপনা গ্রহন করতে হবে,সে বিষয়ে কৃষকদের পরামর্শ প্রদান করছেন কৃষি বিভাগের কর্মকর্তারা।
গত রবিবার (১ অক্টোবর) সন্ধ্যায় উপজেলার ভাদড়া ব্লকের মথুরাপুর গ্রামে সমলয়ে রোপা আমন ধান চাষের মাঠে এ আলোক ফাঁদ কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়। কার্যক্রম পরিচালনা করেন উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার কৃষিবিদ মামুনুর রশীদ ও এসএপিপিও মনিরুল ইসলাম।
আলোক ফাঁদ কার্যক্রমে উপস্থিত কৃষক ইউসুফ আলী বলেন,ধানের জমিতে পোকার উপস্থিতি জানতে কয়েক বছর ধরে ব্লকের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তার সহযোগীতায় আলোক ফাঁদ করি। এতে করে আমরা ধানের জমিতে কোন পোকার আক্রমন আছে তা নিশ্চিত হয়ে কীটনাশক স্প্রে করি। যার ফলে আমাদের কীটনাশক বাবদ খরচ কম হচ্ছে।
আলোক ফাঁদ কার্যক্রমের গুরুত্ব তুলে ধরে উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা সাইদুর রহমান বলেন,ফসলের জমিতে উপস্থিত সকল পোকাই ক্ষতিকর নয়। আলোক ফাঁদে উপস্থিত পোকা দেখে কৃষকদের জানানো হয় মাঠে কি ধরনের পোকা রয়েছে এবং তার জন্য কি দমন ব্যবস্থাপনা গ্রহন করতে হবে। এতে করে এলোপাথারী কীটনাশক প্রয়োগে পরিবেশ দূষণরোধ এবং উৎপাদন খরচ কমানো সম্ভব। পোকার উপস্থিতি শনাক্তকরণের এ পদ্ধতি চাটমোহরের কৃষকদের মাঝে দিন দিন জনপ্রিয় হয়ে উঠছে।

ট্যাগস :

চাটমোহরে জনপ্রিয় হচ্ছে পোকা দমনে আলোক ফাঁদ

আপডেট সময় : ০৬:৫৭:০৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ২ অক্টোবর ২০২৩

পাবনার চাটমোহরে ফসলের ক্ষতিকর পোকা দমনে আলোর ফাঁদ জনপ্রিয় হচ্ছে। উপজেলার বিভিন্ন এলাকার কৃষক আলোর ফাঁদ স্থাপন করে উপকারী ও অপকারী পোকা সনাক্ত করতে পারছেন। দমন করা হচ্ছে অপকারী পোকা। উপজেলার মথুরাপুর ইউনিয়নের ভাদরা ব্লকে সমলয়ে আমন ধানের জমিতে উপকারী এবং অপকারী পোকার উপস্থিতি শনাক্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থাপনা গ্রহনে কৃষকদের পরামর্শ প্রদান করতে আলোক ফাঁদ স্থাপন করা হয়েছে। এসময় আলোক ফাঁদে আসা ক্ষতিকর ও উপকারী পোকা কৃষকের চিনিয়ে দিয়ে কি ব্যবস্থাপনা গ্রহন করতে হবে,সে বিষয়ে কৃষকদের পরামর্শ প্রদান করছেন কৃষি বিভাগের কর্মকর্তারা।
গত রবিবার (১ অক্টোবর) সন্ধ্যায় উপজেলার ভাদড়া ব্লকের মথুরাপুর গ্রামে সমলয়ে রোপা আমন ধান চাষের মাঠে এ আলোক ফাঁদ কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়। কার্যক্রম পরিচালনা করেন উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার কৃষিবিদ মামুনুর রশীদ ও এসএপিপিও মনিরুল ইসলাম।
আলোক ফাঁদ কার্যক্রমে উপস্থিত কৃষক ইউসুফ আলী বলেন,ধানের জমিতে পোকার উপস্থিতি জানতে কয়েক বছর ধরে ব্লকের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তার সহযোগীতায় আলোক ফাঁদ করি। এতে করে আমরা ধানের জমিতে কোন পোকার আক্রমন আছে তা নিশ্চিত হয়ে কীটনাশক স্প্রে করি। যার ফলে আমাদের কীটনাশক বাবদ খরচ কম হচ্ছে।
আলোক ফাঁদ কার্যক্রমের গুরুত্ব তুলে ধরে উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা সাইদুর রহমান বলেন,ফসলের জমিতে উপস্থিত সকল পোকাই ক্ষতিকর নয়। আলোক ফাঁদে উপস্থিত পোকা দেখে কৃষকদের জানানো হয় মাঠে কি ধরনের পোকা রয়েছে এবং তার জন্য কি দমন ব্যবস্থাপনা গ্রহন করতে হবে। এতে করে এলোপাথারী কীটনাশক প্রয়োগে পরিবেশ দূষণরোধ এবং উৎপাদন খরচ কমানো সম্ভব। পোকার উপস্থিতি শনাক্তকরণের এ পদ্ধতি চাটমোহরের কৃষকদের মাঝে দিন দিন জনপ্রিয় হয়ে উঠছে।