ঢাকা ০৬:৩৭ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চাটমোহরে পুকুরে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে প্রাণ গেল দুই জনের

বড়াল প্রতিবেদক:
  • আপডেট সময় : ০৯:৪৭:৫৬ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৫ অক্টোবর ২০২৩ ১৭৭ বার পঠিত

পাবনার চাটমোহরে ঘাস কাটতে গিয়ে পুকুরপাড়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মারা যান শামীম হোসেন (২৬) নামে এক যুবক। তাকে উদ্ধার করতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মারা গেছেন পুকুর মালিক হামিদুল ইসলাম (৪৫)। ঘটনা ঘটেছে গত শনিবার বিকেলে উপজেলার মুলগ্রাম ইউনিয়নের লক্ষèীকান্দা বিলে। খবর পেয়ে পুলিশ দু’জনের মৃতদেহ উদ্ধার করে রবিবার (১৫ অক্টোবর) ময়নাতদন্তের জন্য পাবনা মর্গে পাঠিয়েছে। গত শুক্রবার (১৩ অক্টোবর) সকাল থেকে দুপুরের মধ্যে কোনো এক সময় মারা যান শামীম। আর শনিবার (১৪ অক্টোবর) বিকেলে মৃত্যু হয় হামিদুলের। নিহত হামিদুল উপজেলার বেজপাড়া গ্রামের মাহাতাব আলীর ছেলে আর শামীম সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া উপজেলার জামতৈল গ্রামের বাদশা মিয়ার ছেলে। তিনি চাটমোহরের কৈনুরা গ্রামে তার নানা শাজাহান আলীর বাড়িতে থাকতেন। মুলগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রাশেদুল ইসলাম বকুল শনিবার রাত আটটার দিকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।
পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, গত শুক্রবার সকাল দশটার দিকে শামীম তার নানার বাড়ি থেকে লক্ষèীকান্দা বিলে ঘাস কাটার উদ্দেশ্যে বের হয়। তারপর থেকে তিনি নিখোঁজ ছিলেন। রাতে বাড়ি না ফেরায় তার স্বজনরা খোঁজাখুঁজি করেও তার সন্ধান পায়নি। ওই বিলে হামিদুল তার পুকুরে মাছের চাষ করতেন। মাছ চুরিরোধে কৌশলে পুকুরপাড় দিয়ে বৈদ্যুতিক তার দিয়ে ঘিরে রেখেছিলেন। শামীম ওই পুকুরের পাড়ে ঘাস কাটতে গিয়ে অসাবধনতাবশতঃ সেখানে থাকা বৈদ্যুতিক তারে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মারা যান। শনিবার সন্ধ্যার কিছু আগে নিজের পুকুর দেখতে গিয়ে শামীমের লাশ পুকুরে ভাসতে দেখে তাকে উদ্ধার করতে যান হামিদুল। এ সময় তিনিও একইভাবে সেখানে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মারা যান। নিজের পাতা ফাঁদেই মারা গেলেন হামিদুল।
হামিদুলের ছেলে তানজিদ হোসেন বলেছে,শনিবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে আমি গিয়ে দেখি আব্বা পুকুরপাড়ে মৃত অবস্থায় পড়ে আছে। আর শামীমের লাশ পুকুরের পানিতে ভাসছে। পরে আমার চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসে। খবর পেয়ে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে।
চাটমোহর থানার অফিসার ইনচার্জ সেলিম রেজা জানান,পুকুরপাড়ে অবৈধভাবে বিদ্যুৎ সংযোগ দিয়ে রাখার কারণে এ দুর্ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে ঘটনাস্থল থেকে নিহত দু’জনের লাশ উদ্ধার করে থানায় নেয়া হয়। রবিবার (২৪ অক্টোবর) পাবনা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে লাশের ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে। এ ব্যাপারে থানায় ইউডি মামলা হয়েছে।

ট্যাগস :

চাটমোহরে পুকুরে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে প্রাণ গেল দুই জনের

আপডেট সময় : ০৯:৪৭:৫৬ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৫ অক্টোবর ২০২৩

পাবনার চাটমোহরে ঘাস কাটতে গিয়ে পুকুরপাড়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মারা যান শামীম হোসেন (২৬) নামে এক যুবক। তাকে উদ্ধার করতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মারা গেছেন পুকুর মালিক হামিদুল ইসলাম (৪৫)। ঘটনা ঘটেছে গত শনিবার বিকেলে উপজেলার মুলগ্রাম ইউনিয়নের লক্ষèীকান্দা বিলে। খবর পেয়ে পুলিশ দু’জনের মৃতদেহ উদ্ধার করে রবিবার (১৫ অক্টোবর) ময়নাতদন্তের জন্য পাবনা মর্গে পাঠিয়েছে। গত শুক্রবার (১৩ অক্টোবর) সকাল থেকে দুপুরের মধ্যে কোনো এক সময় মারা যান শামীম। আর শনিবার (১৪ অক্টোবর) বিকেলে মৃত্যু হয় হামিদুলের। নিহত হামিদুল উপজেলার বেজপাড়া গ্রামের মাহাতাব আলীর ছেলে আর শামীম সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া উপজেলার জামতৈল গ্রামের বাদশা মিয়ার ছেলে। তিনি চাটমোহরের কৈনুরা গ্রামে তার নানা শাজাহান আলীর বাড়িতে থাকতেন। মুলগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রাশেদুল ইসলাম বকুল শনিবার রাত আটটার দিকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।
পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, গত শুক্রবার সকাল দশটার দিকে শামীম তার নানার বাড়ি থেকে লক্ষèীকান্দা বিলে ঘাস কাটার উদ্দেশ্যে বের হয়। তারপর থেকে তিনি নিখোঁজ ছিলেন। রাতে বাড়ি না ফেরায় তার স্বজনরা খোঁজাখুঁজি করেও তার সন্ধান পায়নি। ওই বিলে হামিদুল তার পুকুরে মাছের চাষ করতেন। মাছ চুরিরোধে কৌশলে পুকুরপাড় দিয়ে বৈদ্যুতিক তার দিয়ে ঘিরে রেখেছিলেন। শামীম ওই পুকুরের পাড়ে ঘাস কাটতে গিয়ে অসাবধনতাবশতঃ সেখানে থাকা বৈদ্যুতিক তারে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মারা যান। শনিবার সন্ধ্যার কিছু আগে নিজের পুকুর দেখতে গিয়ে শামীমের লাশ পুকুরে ভাসতে দেখে তাকে উদ্ধার করতে যান হামিদুল। এ সময় তিনিও একইভাবে সেখানে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মারা যান। নিজের পাতা ফাঁদেই মারা গেলেন হামিদুল।
হামিদুলের ছেলে তানজিদ হোসেন বলেছে,শনিবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে আমি গিয়ে দেখি আব্বা পুকুরপাড়ে মৃত অবস্থায় পড়ে আছে। আর শামীমের লাশ পুকুরের পানিতে ভাসছে। পরে আমার চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসে। খবর পেয়ে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে।
চাটমোহর থানার অফিসার ইনচার্জ সেলিম রেজা জানান,পুকুরপাড়ে অবৈধভাবে বিদ্যুৎ সংযোগ দিয়ে রাখার কারণে এ দুর্ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে ঘটনাস্থল থেকে নিহত দু’জনের লাশ উদ্ধার করে থানায় নেয়া হয়। রবিবার (২৪ অক্টোবর) পাবনা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে লাশের ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে। এ ব্যাপারে থানায় ইউডি মামলা হয়েছে।