ঢাকা ০৭:৩১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চাটমোহরে স্ত্রী ও ছেলে হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবি করলেন প্রবাসী আঃ রশিদ

বড়াল প্রতিবেদক:
  • আপডেট সময় : ০৫:৩৪:৪৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২৪ ২৩৬ বার পঠিত

পাবনার চাটমোহরে দুর্বুত্তদের হাতে নৃশংসভাবে নিহত স্ত্রী ও ছেলের হত্যাকারীদের গ্রেফতার করে তাদের ফাঁসির দাবি করেছেন মালয়েশিয়া প্রবাসী আঃ রশিদ। রোববার (২৮ জানুয়ারি) মালয়েশিয়া থেকে এক ভিডিও বার্তায় আঃ রশিদ কান্নাজড়িত কন্ঠে বলেন,আমার স্ত্রী ও শিশু সন্তানকে আশপাশের লোকজনই মেরেছে। হত্যাকারীদের ধারনা ছিল আমার স্ত্রী ব্যাংক থেকে মোটা টাকা তুলেছে। কিন্তু ব্যাংকে গিয়েছিল একাউন্ট করতে। আমি দ্রুত খুনিদের চিহ্নিত করে তাদের ফাঁসির দাবি করছি।
গত বৃহস্পতিবার (২৫ জানুয়ারি) পাবনার চাটমোহর উপজেলার ফৈলজানা ইউনিয়নের দিঘুলিয়া গ্রামে নিজ বাড়িতে হত্যাকান্ডের শিকার হন মালয়েশিয়া প্রবাসী আঃ রশিদের স্ত্রী লাবনী খাতুন (৩৫) ও তার ছেলে রিয়াদ মাহমুদ (৮)। পুলিশ পরের দিন শুক্রবার দুপুরে লাশ উদ্ধার করে। শনিবার (২৭ জানুয়ারি) লাশের ময়নাতদন্ত শেষে গ্রামের কবরস্থানে দাফন করা হয়। এসময় গোটা এলাকায় শোকাবহ পরিবেশের সৃষ্টি হয়।
এ হত্যাকান্ডের বিষয়ে নিহত গৃহবধূ লাবনী খাতুনের ভাই ভাঙ্গুড়া উপজেলার হাটগ্রামের বাসিন্দা শাহাদত হোসেন বাদী হয়ে চাটমোহর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নং ২২। পুলিশ এখনও হত্যাকান্ডের কারণ উদঘাটন করতে পারেনি। তবে তারা অধিকতর গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত চালাচ্ছে। পাবনার পুলিশ সুপার আকবর আলী মুন্সি রোববার (২৮ জানুয়ারি) ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পাবনা ডিবি পুলিশ দু’জনকে আটক করেছে ।
চাটমোহর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সেলিম রেজা বলেন,মা ও ছেলেকে কারা,কেন কিভাবে মারছে-এটা অনুসন্ধানে পুলিশ মাঠে নেমেছে। আমরা একেবারে নিবিড়ভাবে তদন্ত করছি। আশাকরি শীঘ্রই এই হত্যাকান্ডের ক্লু উদ্ধার করতে পারবো। আটকের বিষয়টি তিনি নিশ্চিত করেননি।

ট্যাগস :

চাটমোহরে স্ত্রী ও ছেলে হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবি করলেন প্রবাসী আঃ রশিদ

আপডেট সময় : ০৫:৩৪:৪৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২৪

পাবনার চাটমোহরে দুর্বুত্তদের হাতে নৃশংসভাবে নিহত স্ত্রী ও ছেলের হত্যাকারীদের গ্রেফতার করে তাদের ফাঁসির দাবি করেছেন মালয়েশিয়া প্রবাসী আঃ রশিদ। রোববার (২৮ জানুয়ারি) মালয়েশিয়া থেকে এক ভিডিও বার্তায় আঃ রশিদ কান্নাজড়িত কন্ঠে বলেন,আমার স্ত্রী ও শিশু সন্তানকে আশপাশের লোকজনই মেরেছে। হত্যাকারীদের ধারনা ছিল আমার স্ত্রী ব্যাংক থেকে মোটা টাকা তুলেছে। কিন্তু ব্যাংকে গিয়েছিল একাউন্ট করতে। আমি দ্রুত খুনিদের চিহ্নিত করে তাদের ফাঁসির দাবি করছি।
গত বৃহস্পতিবার (২৫ জানুয়ারি) পাবনার চাটমোহর উপজেলার ফৈলজানা ইউনিয়নের দিঘুলিয়া গ্রামে নিজ বাড়িতে হত্যাকান্ডের শিকার হন মালয়েশিয়া প্রবাসী আঃ রশিদের স্ত্রী লাবনী খাতুন (৩৫) ও তার ছেলে রিয়াদ মাহমুদ (৮)। পুলিশ পরের দিন শুক্রবার দুপুরে লাশ উদ্ধার করে। শনিবার (২৭ জানুয়ারি) লাশের ময়নাতদন্ত শেষে গ্রামের কবরস্থানে দাফন করা হয়। এসময় গোটা এলাকায় শোকাবহ পরিবেশের সৃষ্টি হয়।
এ হত্যাকান্ডের বিষয়ে নিহত গৃহবধূ লাবনী খাতুনের ভাই ভাঙ্গুড়া উপজেলার হাটগ্রামের বাসিন্দা শাহাদত হোসেন বাদী হয়ে চাটমোহর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নং ২২। পুলিশ এখনও হত্যাকান্ডের কারণ উদঘাটন করতে পারেনি। তবে তারা অধিকতর গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত চালাচ্ছে। পাবনার পুলিশ সুপার আকবর আলী মুন্সি রোববার (২৮ জানুয়ারি) ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পাবনা ডিবি পুলিশ দু’জনকে আটক করেছে ।
চাটমোহর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সেলিম রেজা বলেন,মা ও ছেলেকে কারা,কেন কিভাবে মারছে-এটা অনুসন্ধানে পুলিশ মাঠে নেমেছে। আমরা একেবারে নিবিড়ভাবে তদন্ত করছি। আশাকরি শীঘ্রই এই হত্যাকান্ডের ক্লু উদ্ধার করতে পারবো। আটকের বিষয়টি তিনি নিশ্চিত করেননি।