ঢাকা ০৮:৪৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজ :
Logo চাটমোহরে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ বিরোধী আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত Logo চাটমোহরে বিদেশ প্রত্যাগত অভিবাসীদের পুনঃএকত্রীকরনে রেইজ প্রকল্পের ভূমিকা শীর্ষক ওরিয়েন্টেশন Logo চাটমেহরে আইন শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভা অনুষ্ঠিত Logo নারী মাদক পাচারকারী আটক ও ৩৩০০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট জব্দ Logo উত্তাল বঙ্গোপসাগর, বন্দরে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত Logo জ্যৈষ্ঠের গরমে তাল শাঁসের ব্যাপক চাহিদা Logo চাটমোহরে শিল্পী সমাজীর মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত Logo ভারতে অস্ত্র চোরাচালান বন্ধ করেছে আ. লীগ সরকার : প্রধানমন্ত্রী Logo পাবনার ভাঁড়ারা ইউপি চেয়ারম্যান সুলতান গ্রেপ্তার Logo গুরুদাসপুরে জনস্বাস্থ্য উন্নয়নে তামাকের মূল্য ও কর বৃদ্ধির দাবীতে অবস্থান কর্মসূচী

নির্বাচন কমিশনের নির্দেশে পাবনায় আওয়ামীলীগ ও ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা

পাবনা প্রতিনিধি:
  • আপডেট সময় : ০৪:০৬:০০ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩ জানুয়ারী ২০২৪ ২৪৪ বার পঠিত

নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগে পাবনার ভাঙ্গুড়া উপজেলার মন্ডতোষ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নুর ইসলাম মিন্টু ও পাবনা জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মিজানুর রহমান সবুজের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।
নির্বাচন কমিশনের নির্দেশে মঙ্গলবার (২ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় পাবনার ৪ নং আমলী আদালত এবং রাতে চাটমোহর থানায় পৃথক দু’টি মামলা দায়ের করা হয়।
ভাঙ্গুড়া উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আতাউর রহমান ও চাটমোহর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা সাজ্জাদ হোসেন মামলা দায়েরের এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
ভাঙ্গুড়া উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আতাউর রহমান জানান,নির্বাচন কমিশনের নির্দেশে তিনি নিজে বাদি হয়ে মন্ডতোষ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নুর ইসলাম মিন্টুর বিরুদ্ধে ৪ নং আমলী আদালত (চাটমোহর-ভাঙ্গুড়া) এ মামলা করেন। তিনি আরো জানান,আদালতের বিচারক ফারহানা ইয়ামীম মামলাটি আমলে নিয়ে শুনানী শেষে আসামীর বিরুদ্ধে সমন জারী করেন। আগামী ১৪ জানুয়ারি আসামী নুর ইসলাম মিন্টুকে আদালতে হাজিরের নির্দেশ দিয়েছেন।
মামলার বিবরণে জানা যায়,গত ১৭ ডিসেম্বর ভাঙ্গুড়া উপজেলার মল্লিকচক গ্রামে স্থানীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে মতবিনিময় সভায় মন্ডতোষ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নুর ইসলাম মিন্টু বক্তব্য দেন,‘ভোট হবে একমাত্র নৌকার, এর বাইরে কোনো লোক বা এজেন্ট থাকবে না। আফসারের সাঙ্গ পাঙ্গদের হাড়-হাড্ডি ভেঙ্গে এলাকা থেকে শেষ করে দিবেন’ মর্মে হুমকি ও উষ্কানীমুলক বক্তব্য প্রদান করেন। তার এই বক্তব্য সংসদ নির্বাচনে রাজনৈতিক দল এবং প্রার্থীর আচরণ বিধিমালা, ২০০৮ এর বিধি ১১(ক) এর বিধান লঙ্ঘন করেছেন মর্মে সংশ্লিষ্ট নির্বাচনী অনুসন্ধান কমিটি নির্বাচন কমিশনে প্রতিবেদন দাখিল করেন। তার প্রেক্ষিতে নির্বাচনী আচরণ বিধিমালা লঙ্ঘনের অভিযোগে বিজ্ঞ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা দায়েরের জন্য নির্দেশ দেন নির্বাচন কমিশন।
সোমবার (১ জানুয়ারি) নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের উপ-সচিব (আইন) মোঃ আব্দুছ ছালাম স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে ভাঙ্গুড়া উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তাকে এ নির্দেশ দেয়া হয়। সেই নির্দেশের আলোকে মামলা দায়ের করেন ভাঙ্গুড়া উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা।
এদিকে,একইভাবে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মিজানুর রহমান সবুজের বিরুদ্ধে চাটমোহর থানায় পৃথক আরেকটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। চাটমোহর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা সাজ্জাদ হোসেন বাদি হয়ে মঙ্গলবার (২ জানুয়ারি) রাতে মামলাটি দায়ের করেন। মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়,গত ২ ডিসেম্বর চাটমোহর উপজেলা আওয়ামীলীগ কার্যালয়ের সামনে অনুষ্ঠিত পথসভায় মিজানুর রহমান সবুজ ‘পাবনা-৩ আসনে মকবুল চাচা ছাড়া কেউ ভোট করতে পারবে না। যারা নৌকার বিরুদ্ধে অবস্থান করবে, তাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করলাম’ মর্মে হুমকি ও উষ্কানীমুলক বক্তব্য প্রদান করেন। তার এই বক্তব্য সংসদ নির্বাচনে রাজনৈতিক দল এবং প্রার্থীর আচরণ বিধিমালা,২০০৮ এর বিধি ১১(ক) এর বিধান লঙ্ঘন করেছেন মর্মে সংশ্লিষ্ট নির্বাচনী অনুসন্ধান কমিটি নির্বাচন কমিশনে প্রতিবেদন দাখিল করেন। তার প্রেক্ষিতে নির্বাচনী আচরণ বিধিমালা লঙ্ঘনের অভিযোগে সংশ্লিষ্ট থানায় এজাহার দায়েরের জন্য নির্দেশ দেন নির্বাচন কমিশন।
সোমবার (১ জানুয়ারি) নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের উপ-সচিব (আইন) মোঃ আব্দুছ ছালাম স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তাকে এ নির্দেশ দেয়া হয়। সেই নির্দেশের আলোকে মামলার এজাহার দায়ের করেন চাটমোহর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা।
চাটমোহর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সেলিম রেজা বলেন,‘মামলা দায়ের হয়েছে। মামলা নং ৬। তদন্ত শেষে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করা হবে।’
এ বিষয়ে মন্ডতোষ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নুর ইসলাম মিন্টুর সাথে কথা বলতে তার মুঠোফোনে একাধিকবার ফোন করা হলেও তিনি রিসিভ করেননি।
জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মিজানুর রহমান সবুজ বলেন, ‘মামলার বিষয়টি অবহিত হয়েছি। আমি আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। আইনগতভাবেই আদালতে বক্তব্য উপস্থাপন করবো। আর এই মামলা প্রমাণ করে এবারের জাতীয় সংসদ নির্বাচন অবাধ,সুষ্ঠ ও নিরপেক্ষ হবে।’

ট্যাগস :

নির্বাচন কমিশনের নির্দেশে পাবনায় আওয়ামীলীগ ও ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা

আপডেট সময় : ০৪:০৬:০০ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩ জানুয়ারী ২০২৪

নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগে পাবনার ভাঙ্গুড়া উপজেলার মন্ডতোষ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নুর ইসলাম মিন্টু ও পাবনা জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মিজানুর রহমান সবুজের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।
নির্বাচন কমিশনের নির্দেশে মঙ্গলবার (২ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় পাবনার ৪ নং আমলী আদালত এবং রাতে চাটমোহর থানায় পৃথক দু’টি মামলা দায়ের করা হয়।
ভাঙ্গুড়া উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আতাউর রহমান ও চাটমোহর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা সাজ্জাদ হোসেন মামলা দায়েরের এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
ভাঙ্গুড়া উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আতাউর রহমান জানান,নির্বাচন কমিশনের নির্দেশে তিনি নিজে বাদি হয়ে মন্ডতোষ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নুর ইসলাম মিন্টুর বিরুদ্ধে ৪ নং আমলী আদালত (চাটমোহর-ভাঙ্গুড়া) এ মামলা করেন। তিনি আরো জানান,আদালতের বিচারক ফারহানা ইয়ামীম মামলাটি আমলে নিয়ে শুনানী শেষে আসামীর বিরুদ্ধে সমন জারী করেন। আগামী ১৪ জানুয়ারি আসামী নুর ইসলাম মিন্টুকে আদালতে হাজিরের নির্দেশ দিয়েছেন।
মামলার বিবরণে জানা যায়,গত ১৭ ডিসেম্বর ভাঙ্গুড়া উপজেলার মল্লিকচক গ্রামে স্থানীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে মতবিনিময় সভায় মন্ডতোষ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নুর ইসলাম মিন্টু বক্তব্য দেন,‘ভোট হবে একমাত্র নৌকার, এর বাইরে কোনো লোক বা এজেন্ট থাকবে না। আফসারের সাঙ্গ পাঙ্গদের হাড়-হাড্ডি ভেঙ্গে এলাকা থেকে শেষ করে দিবেন’ মর্মে হুমকি ও উষ্কানীমুলক বক্তব্য প্রদান করেন। তার এই বক্তব্য সংসদ নির্বাচনে রাজনৈতিক দল এবং প্রার্থীর আচরণ বিধিমালা, ২০০৮ এর বিধি ১১(ক) এর বিধান লঙ্ঘন করেছেন মর্মে সংশ্লিষ্ট নির্বাচনী অনুসন্ধান কমিটি নির্বাচন কমিশনে প্রতিবেদন দাখিল করেন। তার প্রেক্ষিতে নির্বাচনী আচরণ বিধিমালা লঙ্ঘনের অভিযোগে বিজ্ঞ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা দায়েরের জন্য নির্দেশ দেন নির্বাচন কমিশন।
সোমবার (১ জানুয়ারি) নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের উপ-সচিব (আইন) মোঃ আব্দুছ ছালাম স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে ভাঙ্গুড়া উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তাকে এ নির্দেশ দেয়া হয়। সেই নির্দেশের আলোকে মামলা দায়ের করেন ভাঙ্গুড়া উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা।
এদিকে,একইভাবে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মিজানুর রহমান সবুজের বিরুদ্ধে চাটমোহর থানায় পৃথক আরেকটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। চাটমোহর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা সাজ্জাদ হোসেন বাদি হয়ে মঙ্গলবার (২ জানুয়ারি) রাতে মামলাটি দায়ের করেন। মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়,গত ২ ডিসেম্বর চাটমোহর উপজেলা আওয়ামীলীগ কার্যালয়ের সামনে অনুষ্ঠিত পথসভায় মিজানুর রহমান সবুজ ‘পাবনা-৩ আসনে মকবুল চাচা ছাড়া কেউ ভোট করতে পারবে না। যারা নৌকার বিরুদ্ধে অবস্থান করবে, তাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করলাম’ মর্মে হুমকি ও উষ্কানীমুলক বক্তব্য প্রদান করেন। তার এই বক্তব্য সংসদ নির্বাচনে রাজনৈতিক দল এবং প্রার্থীর আচরণ বিধিমালা,২০০৮ এর বিধি ১১(ক) এর বিধান লঙ্ঘন করেছেন মর্মে সংশ্লিষ্ট নির্বাচনী অনুসন্ধান কমিটি নির্বাচন কমিশনে প্রতিবেদন দাখিল করেন। তার প্রেক্ষিতে নির্বাচনী আচরণ বিধিমালা লঙ্ঘনের অভিযোগে সংশ্লিষ্ট থানায় এজাহার দায়েরের জন্য নির্দেশ দেন নির্বাচন কমিশন।
সোমবার (১ জানুয়ারি) নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের উপ-সচিব (আইন) মোঃ আব্দুছ ছালাম স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তাকে এ নির্দেশ দেয়া হয়। সেই নির্দেশের আলোকে মামলার এজাহার দায়ের করেন চাটমোহর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা।
চাটমোহর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সেলিম রেজা বলেন,‘মামলা দায়ের হয়েছে। মামলা নং ৬। তদন্ত শেষে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করা হবে।’
এ বিষয়ে মন্ডতোষ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নুর ইসলাম মিন্টুর সাথে কথা বলতে তার মুঠোফোনে একাধিকবার ফোন করা হলেও তিনি রিসিভ করেননি।
জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মিজানুর রহমান সবুজ বলেন, ‘মামলার বিষয়টি অবহিত হয়েছি। আমি আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। আইনগতভাবেই আদালতে বক্তব্য উপস্থাপন করবো। আর এই মামলা প্রমাণ করে এবারের জাতীয় সংসদ নির্বাচন অবাধ,সুষ্ঠ ও নিরপেক্ষ হবে।’