ঢাকা ০৯:০০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ব্রেকিং নিউজ :
Logo চাটমোহরে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ বিরোধী আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত Logo চাটমোহরে বিদেশ প্রত্যাগত অভিবাসীদের পুনঃএকত্রীকরনে রেইজ প্রকল্পের ভূমিকা শীর্ষক ওরিয়েন্টেশন Logo চাটমেহরে আইন শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভা অনুষ্ঠিত Logo নারী মাদক পাচারকারী আটক ও ৩৩০০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট জব্দ Logo উত্তাল বঙ্গোপসাগর, বন্দরে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত Logo জ্যৈষ্ঠের গরমে তাল শাঁসের ব্যাপক চাহিদা Logo চাটমোহরে শিল্পী সমাজীর মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত Logo ভারতে অস্ত্র চোরাচালান বন্ধ করেছে আ. লীগ সরকার : প্রধানমন্ত্রী Logo পাবনার ভাঁড়ারা ইউপি চেয়ারম্যান সুলতান গ্রেপ্তার Logo গুরুদাসপুরে জনস্বাস্থ্য উন্নয়নে তামাকের মূল্য ও কর বৃদ্ধির দাবীতে অবস্থান কর্মসূচী

পাবনায় স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ: যুবকের যাবজ্জীবন

পাবনা প্রতিনিধি:
  • আপডেট সময় : ০৭:৫০:৩৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২২ মার্চ ২০২৪ ৫৩ বার পঠিত

পাবনা প্রতিনিধি
পাবনার সাঁথিয়ায় নবম শ্রেণির ছাত্রীকে অপহরণ করে ধর্ষণের মামলায় আরমান হোসেন (২৭) নামে যুবকের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে তাকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২১ মার্চ) দুপুরে পাবনার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল (জেলা ও দায়রা জজ) আদালতের বিচারক মো. মিজানুর রহমান এ আদেশ দেন।
যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত আরমান হোসেন সাঁথিয়া উপজেলার ক্ষেতুপাড়া ইউনিয়নের মিয়াপুর গ্রামের আব্দুল হামিদ খানের ছেলে।
মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, আরমান হোসেন বিভিন্ন সময় ওই মেয়েকে প্রেমের প্রস্তাব দিতেন। তার প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় রাস্তাঘাটে হুমকি-ধামকি দিতেন। নিরাপত্তাজনিত সমস্যায় এক পর্যায়ে স্কুলে যাওয়া বন্ধ করে দেয় মেয়েটি। কিন্তু গ্রাম প্রধানদের আশ্বাসে আবার স্কুলে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। ২০২২ সালের ১৯ জুন সকাল ৯টার দিকে নবম শ্রেণির ওই ছাত্রী বাড়ি থেকে স্কুলের দিকে যাচ্ছিল। এমন সময় পুর্ব থেকে ওঁৎ পেতে থাকা আরমান তাকে মাইক্রোবাসে করে অপহরণ করে। এরপর তাকে ধর্ষণ করে। পরিবারের লোকজন অনেক খোঁজাখুঁজি করেও তার সন্ধান না পাওয়াতে থানা পুলিশের দারস্ত হয়। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে ছাত্রীকে উদ্ধার করে। এ ঘটনার চার দিন পর স্কুলছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে সাঁথিয়া থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। তদন্ত শেষে ২০২৩ সালের শেষের দিকে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে পুলিশ।
আসামিপক্ষের আইনজীবী নুরুজ্জামান নোমান বলেন, এ মামলায় যাবজ্জীবন সাজা দেওয়ায় তার মক্কেল ন্যায়বিচার থেকে বঞ্জিত হয়েছে। উচ্চ আদালতে আপিল করা হবে। আপিলে ন্যায়বিচার পাবেন বলে তিনি মনে করেন।
রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী পাবনা জজকোর্টের বিশেষ পিপি খন্দকার আব্দুর রকিব মামলার দুই বছরের মাথায় রায় ঘোষণা হওয়ায় সন্তোষ প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, ‘যাবজ্জীবন সাজা হওয়াতে বাদী ন্যায়বিচার পেয়েছে। এখানে সাজা কমে যাওয়ার সুযোগ নেই।’

ট্যাগস :

পাবনায় স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ: যুবকের যাবজ্জীবন

আপডেট সময় : ০৭:৫০:৩৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২২ মার্চ ২০২৪

পাবনা প্রতিনিধি
পাবনার সাঁথিয়ায় নবম শ্রেণির ছাত্রীকে অপহরণ করে ধর্ষণের মামলায় আরমান হোসেন (২৭) নামে যুবকের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে তাকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২১ মার্চ) দুপুরে পাবনার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল (জেলা ও দায়রা জজ) আদালতের বিচারক মো. মিজানুর রহমান এ আদেশ দেন।
যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত আরমান হোসেন সাঁথিয়া উপজেলার ক্ষেতুপাড়া ইউনিয়নের মিয়াপুর গ্রামের আব্দুল হামিদ খানের ছেলে।
মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, আরমান হোসেন বিভিন্ন সময় ওই মেয়েকে প্রেমের প্রস্তাব দিতেন। তার প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় রাস্তাঘাটে হুমকি-ধামকি দিতেন। নিরাপত্তাজনিত সমস্যায় এক পর্যায়ে স্কুলে যাওয়া বন্ধ করে দেয় মেয়েটি। কিন্তু গ্রাম প্রধানদের আশ্বাসে আবার স্কুলে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। ২০২২ সালের ১৯ জুন সকাল ৯টার দিকে নবম শ্রেণির ওই ছাত্রী বাড়ি থেকে স্কুলের দিকে যাচ্ছিল। এমন সময় পুর্ব থেকে ওঁৎ পেতে থাকা আরমান তাকে মাইক্রোবাসে করে অপহরণ করে। এরপর তাকে ধর্ষণ করে। পরিবারের লোকজন অনেক খোঁজাখুঁজি করেও তার সন্ধান না পাওয়াতে থানা পুলিশের দারস্ত হয়। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে ছাত্রীকে উদ্ধার করে। এ ঘটনার চার দিন পর স্কুলছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে সাঁথিয়া থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। তদন্ত শেষে ২০২৩ সালের শেষের দিকে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে পুলিশ।
আসামিপক্ষের আইনজীবী নুরুজ্জামান নোমান বলেন, এ মামলায় যাবজ্জীবন সাজা দেওয়ায় তার মক্কেল ন্যায়বিচার থেকে বঞ্জিত হয়েছে। উচ্চ আদালতে আপিল করা হবে। আপিলে ন্যায়বিচার পাবেন বলে তিনি মনে করেন।
রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী পাবনা জজকোর্টের বিশেষ পিপি খন্দকার আব্দুর রকিব মামলার দুই বছরের মাথায় রায় ঘোষণা হওয়ায় সন্তোষ প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, ‘যাবজ্জীবন সাজা হওয়াতে বাদী ন্যায়বিচার পেয়েছে। এখানে সাজা কমে যাওয়ার সুযোগ নেই।’