ঢাকা ১১:৫৯ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ফরিদপুরে পাওনা টাকা নিয়ে কথা কাটাকাটির জেরে দোকান ভাংচুুর ও নগদ টকাসহ দোকান লুটের অভিযোগ

ফরিদপুর (পাবনা) প্রতিনিধি:
  • আপডেট সময় : ০৮:৫০:৫৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৮ অক্টোবর ২০২৩ ১৬৮ বার পঠিত

ফরিদপুরে পাওনা টাকা নিয়ে কথা দু’পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটির জের ধরে উপজেলার পাছপুংগলী বাজারের আলহাজ আলী ও তার স্ত্রীকে মারপিট,তার দোকান ভাংচুর ও দোকান লুট করার থানায় লিখিত অভিযোগ করেছে আলহাজ আলী। থানায় লিখিত অভিযোগ ও থানা সুত্রে জানা যায়,পাছপুংগলী গ্রামের মৃত হাসেন মোল্লার ছেলে আলহাজ আলীর পাছপুংগলী বাজারে মোল্লা বইঘর এন্ড স্টেশনারী নামে একটি দোকান রয়েছে। দোকানের পিছনে তার বাসা। গত ২৭ অক্টোবর বিকেল প্রায় সাড়ে ৫ টার দিকে বায়রাপাড়া গ্রামের দারোগ আলীর ছেলে আনোয়ার প্রাং ও মাছুয়াঘাটা গ্রামের জানু প্রাং এর ছেলে মোঃ সোবহান ও আজিত প্রাং এর ছেলে দুলাল প্রাং আলহাজ আলীর দোকানে এসে পাওনা টাকা চাইলে উভয় পক্ষের মধ্যে কথাকাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে তারা আলহাজ আলীকে মারপিট শুরু করলে পিছনের বাসা থেকে তার স্ত্রী চাম্পা খাতুন এগিয়ে এলে তাকেও মারপিট করে। তারা আলহাজ আলীকে চাকু দিয়ে কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম এবং তার স্ত্রীর ব্লাউজ ছিঁড়ে ফেলে। দোকান ভাংচুর করে। এ ছাড়া দোকানের ক্যাশ বাক্স থেকে নগদ টাকা প্রায় ৭ লক্ষ টাকা,স্ত্রীর লক্ষাধিক টাকা মুল্যের স্বর্ণালংকার নিয়ে যায়। দোকান ভাংচুরের ফলে প্রায় ৩ লক্ষ টাকার ক্ষতি হয়। ঘটনার পরে আলহাজ আলীকে এলাকাবাসী উদ্ধার করে ফরিদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। এ ব্যাপারে ফরিদপুর থানার ওসি মিজানুর রহমানকে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি জানান,অভিযোগ পাওয়া গে়ছে। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

ট্যাগস :

ফরিদপুরে পাওনা টাকা নিয়ে কথা কাটাকাটির জেরে দোকান ভাংচুুর ও নগদ টকাসহ দোকান লুটের অভিযোগ

আপডেট সময় : ০৮:৫০:৫৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৮ অক্টোবর ২০২৩

ফরিদপুরে পাওনা টাকা নিয়ে কথা দু’পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটির জের ধরে উপজেলার পাছপুংগলী বাজারের আলহাজ আলী ও তার স্ত্রীকে মারপিট,তার দোকান ভাংচুর ও দোকান লুট করার থানায় লিখিত অভিযোগ করেছে আলহাজ আলী। থানায় লিখিত অভিযোগ ও থানা সুত্রে জানা যায়,পাছপুংগলী গ্রামের মৃত হাসেন মোল্লার ছেলে আলহাজ আলীর পাছপুংগলী বাজারে মোল্লা বইঘর এন্ড স্টেশনারী নামে একটি দোকান রয়েছে। দোকানের পিছনে তার বাসা। গত ২৭ অক্টোবর বিকেল প্রায় সাড়ে ৫ টার দিকে বায়রাপাড়া গ্রামের দারোগ আলীর ছেলে আনোয়ার প্রাং ও মাছুয়াঘাটা গ্রামের জানু প্রাং এর ছেলে মোঃ সোবহান ও আজিত প্রাং এর ছেলে দুলাল প্রাং আলহাজ আলীর দোকানে এসে পাওনা টাকা চাইলে উভয় পক্ষের মধ্যে কথাকাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে তারা আলহাজ আলীকে মারপিট শুরু করলে পিছনের বাসা থেকে তার স্ত্রী চাম্পা খাতুন এগিয়ে এলে তাকেও মারপিট করে। তারা আলহাজ আলীকে চাকু দিয়ে কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম এবং তার স্ত্রীর ব্লাউজ ছিঁড়ে ফেলে। দোকান ভাংচুর করে। এ ছাড়া দোকানের ক্যাশ বাক্স থেকে নগদ টাকা প্রায় ৭ লক্ষ টাকা,স্ত্রীর লক্ষাধিক টাকা মুল্যের স্বর্ণালংকার নিয়ে যায়। দোকান ভাংচুরের ফলে প্রায় ৩ লক্ষ টাকার ক্ষতি হয়। ঘটনার পরে আলহাজ আলীকে এলাকাবাসী উদ্ধার করে ফরিদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। এ ব্যাপারে ফরিদপুর থানার ওসি মিজানুর রহমানকে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি জানান,অভিযোগ পাওয়া গে়ছে। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।