ঢাকা ০৬:২৪ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ভাঙ্গুড়ায় শ্বশুর বাড়িতে স্ত্রীকে নিতে এসে জামাইয়ের মৃত্যু

ভাঙ্গুড়া(পাবনা)প্রতিনিধি:
  • আপডেট সময় : ০৩:২৮:৩১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৪ নভেম্বর ২০২৩ ১৪৮ বার পঠিত

পাবনা ভাঙ্গুড়ায় শ্বশুর বাড়িতে স্ত্রীকে নিতে এসে সাইফুল ইসলাম (৪০) নামের এক জামাইয়ের মৃত্যু হয়েছে। ররিবার(১২ নভেম্বর) সন্ধ্যা রাতে উপজেলার নৌবাড়িয়া মধ্যপাড়ায় মৃত হাসেন আলী খাঁ এর বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। মৃত জামাই হাসেন আলী এক সন্তানের জনক এবং দিলপাশার ইউনিয়নের কাজীটোল গ্রামের বাসিন্দা। পুলিশ সোমবার সকালে লাশ উদ্ধার করে সুরত হাল শেষে মর্গে প্রেরণ করেছেন। শ্বশুর বাড়ির লোকজনের দাবী,সে অভিমান করে কীটনাশক প্রাণকরে আত্মহত্যা করেছেন।
নিহতের পারিবার ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, নিহত সাইফুল ইসলাম কাজীটোল এলাকার স্থায়ী বাসিন্দা হলেও ভাঙ্গুড়া পৌরসদরের বাসস্ট্যান্ড এলাকায় চা-পান ও বিস্কুটের দোকান ছিল। সেই সুবাদের তিনি এসআর পাড়ায় ভাড়া বাসায় থাকতেন। তাদের ঘরে বারো বছরের একটি সন্তান রয়েছে।ঘটনার পূর্বে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়াঝাটির জেরে তার স্ত্রী বাপের বাড়ি নৌবাড়িয়াতে চলে যান।সোমবার তিনি তার স্ত্রীকে নিজ বাড়ি ফিরিয়ে আনতে শ্বশুর বাড়িতে গিয়েছিলেন। কিন্তু সন্ধ্যা রাতেই তিনি মৃত্যুবরণ করেছেন। শ্বশুর বাড়ির লোকজনের জানান,দুপুরের দিকে তাদের বাড়িতে আসেন জামাই সাইফুল । তাদের মধ্যে কথাকাটাকাটির একপর্যায়ে কীটনাশক সেবন করে অসুস্থ হয়ে পাড়েন। অসুস্থতার এক পর্যায়ে সন্ধ্যা রাতের দিকে তিনি মৃত্যুবরণ করেন। অপর দিকে নিহতের বড় ভাই হাসানুর আলীর জানান,দীর্ঘদিন ধরে তাদের পরিবারে অসামাজিক বিষয় নিয়ে কলহ চলে আসছিল। যে বিয়ষটা মুখ ফুটে সাইফুল পরিবারের বাহিরের কাউকেই বলতে পারে নি। পারিবারিক দ্বন্দ্বের কারণে তার স্ত্রী নৌবাড়িয়া বাপের বাড়িতে চলে যান।সন্ধ্যায় রাতেই শ্বশুর বাড়ির পক্ষ থেকে তারা মোবাইল ফোনে ভাইয়ের মৃত্যুর সংনাদ

ঘটনার বিষয়ে ভাঙ্গুড়া ইউনিয়নের সংশ্লিষ্ঠ ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য স্বপন আহম্মেদ জানান, পরকিয়ার বিষয়ে তাদের পরিবারে কলহের জেরে শ্বশুরবাড়ি নৌবাড়িয়াতে এসে জামাই কীটনাশক সেবন করে আত্মহত্যার কথা শুনেছেন।

এ বিষয়ে ভাঙ্গুড়া থানার ওসি আলহাজ্ব মো. রাশিদুল ইসলাম বলেন, লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল প্রতিবেদন শেষে পাবনা সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা দায়ের করা হয়েছে।

ট্যাগস :

ভাঙ্গুড়ায় শ্বশুর বাড়িতে স্ত্রীকে নিতে এসে জামাইয়ের মৃত্যু

আপডেট সময় : ০৩:২৮:৩১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৪ নভেম্বর ২০২৩

পাবনা ভাঙ্গুড়ায় শ্বশুর বাড়িতে স্ত্রীকে নিতে এসে সাইফুল ইসলাম (৪০) নামের এক জামাইয়ের মৃত্যু হয়েছে। ররিবার(১২ নভেম্বর) সন্ধ্যা রাতে উপজেলার নৌবাড়িয়া মধ্যপাড়ায় মৃত হাসেন আলী খাঁ এর বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। মৃত জামাই হাসেন আলী এক সন্তানের জনক এবং দিলপাশার ইউনিয়নের কাজীটোল গ্রামের বাসিন্দা। পুলিশ সোমবার সকালে লাশ উদ্ধার করে সুরত হাল শেষে মর্গে প্রেরণ করেছেন। শ্বশুর বাড়ির লোকজনের দাবী,সে অভিমান করে কীটনাশক প্রাণকরে আত্মহত্যা করেছেন।
নিহতের পারিবার ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, নিহত সাইফুল ইসলাম কাজীটোল এলাকার স্থায়ী বাসিন্দা হলেও ভাঙ্গুড়া পৌরসদরের বাসস্ট্যান্ড এলাকায় চা-পান ও বিস্কুটের দোকান ছিল। সেই সুবাদের তিনি এসআর পাড়ায় ভাড়া বাসায় থাকতেন। তাদের ঘরে বারো বছরের একটি সন্তান রয়েছে।ঘটনার পূর্বে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়াঝাটির জেরে তার স্ত্রী বাপের বাড়ি নৌবাড়িয়াতে চলে যান।সোমবার তিনি তার স্ত্রীকে নিজ বাড়ি ফিরিয়ে আনতে শ্বশুর বাড়িতে গিয়েছিলেন। কিন্তু সন্ধ্যা রাতেই তিনি মৃত্যুবরণ করেছেন। শ্বশুর বাড়ির লোকজনের জানান,দুপুরের দিকে তাদের বাড়িতে আসেন জামাই সাইফুল । তাদের মধ্যে কথাকাটাকাটির একপর্যায়ে কীটনাশক সেবন করে অসুস্থ হয়ে পাড়েন। অসুস্থতার এক পর্যায়ে সন্ধ্যা রাতের দিকে তিনি মৃত্যুবরণ করেন। অপর দিকে নিহতের বড় ভাই হাসানুর আলীর জানান,দীর্ঘদিন ধরে তাদের পরিবারে অসামাজিক বিষয় নিয়ে কলহ চলে আসছিল। যে বিয়ষটা মুখ ফুটে সাইফুল পরিবারের বাহিরের কাউকেই বলতে পারে নি। পারিবারিক দ্বন্দ্বের কারণে তার স্ত্রী নৌবাড়িয়া বাপের বাড়িতে চলে যান।সন্ধ্যায় রাতেই শ্বশুর বাড়ির পক্ষ থেকে তারা মোবাইল ফোনে ভাইয়ের মৃত্যুর সংনাদ

ঘটনার বিষয়ে ভাঙ্গুড়া ইউনিয়নের সংশ্লিষ্ঠ ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য স্বপন আহম্মেদ জানান, পরকিয়ার বিষয়ে তাদের পরিবারে কলহের জেরে শ্বশুরবাড়ি নৌবাড়িয়াতে এসে জামাই কীটনাশক সেবন করে আত্মহত্যার কথা শুনেছেন।

এ বিষয়ে ভাঙ্গুড়া থানার ওসি আলহাজ্ব মো. রাশিদুল ইসলাম বলেন, লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল প্রতিবেদন শেষে পাবনা সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা দায়ের করা হয়েছে।