ঢাকা ০৭:২০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ভাঙ্গুড়ায় ৩দিনব্যাপী কৃষি প্রযুক্তি মেলা উদ্ভোধন

ভাঙ্গুড়া(পাবনা)প্রতিনিধি:
  • আপডেট সময় : ০৩:০৪:২২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ ৯০ বার পঠিত

পাবনার ভাঙ্গুড়ায় ২৭ ফেব্রুয়ারী মঙ্গলবার বেলা ১১টায় ৩ দিনব্যাপী কৃষি প্রযুক্তি মেলা ২০২৪ উদ্ভোধন হয়েছে। উপজেলা পরিষদ চত্বরে ওই মেলার উদ্বোধন করেন, ভাঙ্গুড়া পৌর মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ¦ মো: গোলাম হাসনাইন রাসেল।

মেলায় কৃষি প্রযুক্তি, জৈব কৃষি ও জৈবিক বালাই ব্যবস্থাপনা ও বালাইনাশকের ঝুঁকি হ্রাস, বিভিন্ন ফসলের বীজ ও সার, ফল ও সবজি প্রদর্শন, ডিজিটাল কৃষি সম্প্রসারণ, কৃষি যান্ত্রিকীকরণ ফার্মসহ ১২টি স্টল রয়েছে। মেলার আয়োজক ভাঙ্গুড়া উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্র জানায়, আধুনিক প্রযুক্তি সম্প্রসারণের মাধ্যমে রাজশাহী বিভাগের কৃষি উন্নয়নের আওতায় এ মেলার আয়োজন করা হয়েছে। আগামী ২৯ ফেব্রুয়ারী বৃহস্পতিবার পর্যন্ত এ মেলা চলবে।

উদ্বোধনকালে ভাঙ্গুড়া পৌর মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ¦ মোঃ গোলাম হাসনাইন রাসেল বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শুধু একটি নির্দিষ্ট বিষয় নয়, পুরো বাংলাদেশকে নিয়ে ভাবেন। এদেশের কৃষকদের নিয়ে ভাবেন। কৃষকদের যত বেশি সমৃদ্ধ করা যাবে তত বেশি সমৃদ্ধ হবে দেশ। কৃষকদের বাদ দিয়ে উন্নত বাংলাদেশ গড়া অসম্ভব।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: আরাফাত হোসেন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ গোলাম হাফিজ রঞ্জু, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মোছা: আজিদা পারভীন পাখি। এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, ভাঙ্গুড়া রিপোর্টার্স ইউনিটির সাধারণ সম্পাদক মোঃ ময়নুল হক, উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ নাজমুল হুদা সহ উপজেলার পরিষদের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা বৃন্দ ।

কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ শারমিন জাহান বলেন, মেলায় বিভিন্ন ধরনের ফসল, ফল—মূল এবং প্রযুক্তির সম্মিলন হয়েছে। যা থেকে এখানের কৃষির পাশাপাশি কৃষক সমৃদ্ধ হবে। মেলায় কৃষকদের ১২ ধরনের বীজ এবং ৩টি করে চারা দেওয়া হচ্ছে।

উপজেলার পার—ভাঙ্গুড়া ইউনিয়নের ভেড়ামারা গ্রামের কৃষক মোঃ সেলিম আহমেদ বলেন, আমি পাঁচ একর জায়গায় বছরজুড়ে বিভিন্ন ফসল আবাদ করি। তবে এখানে এসে নতুন—নতুন প্রযুক্তি চোখে পড়ছে যেগুলো প্রয়োগ করলে আমার শ্রম, অর্থ সাশ্রয় হবে। পাশাপাশি উপকারও পাওয়া যাবে।
অনুষ্ঠানে কৃষি বিভাগের কর্মকর্তা এবং বিভিন্ন ইউনিয়ন থেকে আগত কৃষকরা উপস্থিত ছিলেন।

ট্যাগস :

ভাঙ্গুড়ায় ৩দিনব্যাপী কৃষি প্রযুক্তি মেলা উদ্ভোধন

আপডেট সময় : ০৩:০৪:২২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

পাবনার ভাঙ্গুড়ায় ২৭ ফেব্রুয়ারী মঙ্গলবার বেলা ১১টায় ৩ দিনব্যাপী কৃষি প্রযুক্তি মেলা ২০২৪ উদ্ভোধন হয়েছে। উপজেলা পরিষদ চত্বরে ওই মেলার উদ্বোধন করেন, ভাঙ্গুড়া পৌর মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ¦ মো: গোলাম হাসনাইন রাসেল।

মেলায় কৃষি প্রযুক্তি, জৈব কৃষি ও জৈবিক বালাই ব্যবস্থাপনা ও বালাইনাশকের ঝুঁকি হ্রাস, বিভিন্ন ফসলের বীজ ও সার, ফল ও সবজি প্রদর্শন, ডিজিটাল কৃষি সম্প্রসারণ, কৃষি যান্ত্রিকীকরণ ফার্মসহ ১২টি স্টল রয়েছে। মেলার আয়োজক ভাঙ্গুড়া উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্র জানায়, আধুনিক প্রযুক্তি সম্প্রসারণের মাধ্যমে রাজশাহী বিভাগের কৃষি উন্নয়নের আওতায় এ মেলার আয়োজন করা হয়েছে। আগামী ২৯ ফেব্রুয়ারী বৃহস্পতিবার পর্যন্ত এ মেলা চলবে।

উদ্বোধনকালে ভাঙ্গুড়া পৌর মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ¦ মোঃ গোলাম হাসনাইন রাসেল বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শুধু একটি নির্দিষ্ট বিষয় নয়, পুরো বাংলাদেশকে নিয়ে ভাবেন। এদেশের কৃষকদের নিয়ে ভাবেন। কৃষকদের যত বেশি সমৃদ্ধ করা যাবে তত বেশি সমৃদ্ধ হবে দেশ। কৃষকদের বাদ দিয়ে উন্নত বাংলাদেশ গড়া অসম্ভব।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: আরাফাত হোসেন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ গোলাম হাফিজ রঞ্জু, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মোছা: আজিদা পারভীন পাখি। এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, ভাঙ্গুড়া রিপোর্টার্স ইউনিটির সাধারণ সম্পাদক মোঃ ময়নুল হক, উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ নাজমুল হুদা সহ উপজেলার পরিষদের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা বৃন্দ ।

কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ শারমিন জাহান বলেন, মেলায় বিভিন্ন ধরনের ফসল, ফল—মূল এবং প্রযুক্তির সম্মিলন হয়েছে। যা থেকে এখানের কৃষির পাশাপাশি কৃষক সমৃদ্ধ হবে। মেলায় কৃষকদের ১২ ধরনের বীজ এবং ৩টি করে চারা দেওয়া হচ্ছে।

উপজেলার পার—ভাঙ্গুড়া ইউনিয়নের ভেড়ামারা গ্রামের কৃষক মোঃ সেলিম আহমেদ বলেন, আমি পাঁচ একর জায়গায় বছরজুড়ে বিভিন্ন ফসল আবাদ করি। তবে এখানে এসে নতুন—নতুন প্রযুক্তি চোখে পড়ছে যেগুলো প্রয়োগ করলে আমার শ্রম, অর্থ সাশ্রয় হবে। পাশাপাশি উপকারও পাওয়া যাবে।
অনুষ্ঠানে কৃষি বিভাগের কর্মকর্তা এবং বিভিন্ন ইউনিয়ন থেকে আগত কৃষকরা উপস্থিত ছিলেন।