ঢাকা ০৫:২৪ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হরতাল-অবরোধ কৃষিপণ্য নির্বিঘ্নে চলাচলের দাবি

ঈশ্বরদী (পাবনা) প্রতিনিধি:
  • আপডেট সময় : ০৩:৩১:২৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩১ অক্টোবর ২০২৩ ৯৮ বার পঠিত

হরতাল-অবরোধে কৃষিপণ্য নির্বিঘেœচলাচলের দাবি জানিয়েছেন কৃষক নেতারা। মঙ্গলবার (৩১ অক্টোবর) ঈশ্বরদী প্রেসক্লাবে জনাকীর্ণ সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ কৃষক উন্নয়ন সোসাইটির কেন্দ্রীয় কমিটির নেতারা হরতাল-অবরোধ প্রত্যাহার করে কৃষিপণ্য নির্বিঘেœ বাজারজাতকরণের দাবি জানান।
লিখিত বক্তব্যে কৃষক উন্নয়ন সোসাইটির সভাপতি ও জাতীয় কৃষি পদকপ্রাপ্ত কৃষক সিদ্দিকুর রহমান ময়েজ ও রফেকুল ময়েজ বলেন, কৃষি নির্ভর বাংলাদেশে হরতাল-অবরোধ করে কৃষিপণ্য তথা কৃষককে ধ্বংস করার ষড়যন্ত্র চলছে। ২০১৪ সালে টানা হরতাল-অবরোধ সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে কৃষিখাত। পরে করোনাকালীন সময়ে মূখ থুবড়ে পরে কৃষিখাত। বর্তমান সরকারের নানামূখি পদক্ষেপে কৃষিখাতকে ভগ্নদশা থেকে উত্তরণের জন্য কৃষকরা কঠোর পরিশ্রম করছে। কৃষকদের ব্যাংক থেকে কোন ঋণ দেওয় াহয়না জানিয়ে তিনি বলেন, এনজিও এর সুদসহ ঋণের কিস্তি দিতে আজ কৃষক সমাজ হিমসিম খাচ্ছে। ঠিক সে সময়ে হরতাল আর অবরোধের মতো কঠোর কর্মসূচি গ্রহন করেছে বিরোধী রাজনৈতিক জোট। এতে মারাত্বক ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে দেশের কৃষকসমাজ।
শুধুমাত্র ঈশ^রদীতেই প্রতিদিন ১০ কোটি টাকার লেনদেন হয় জানিয়ে তিনি বলেন,আন্দোলন সংগ্রাম করে কৃষক ও কৃষিপণ্যকে জিম্মি করে রাজনৈতিক নেতারা ক্ষমতায় যায়, তারা লাভবান হয়। আর ক্ষতিগ্রস্থ হয় কৃষক। হরতাল অবরোধে কৃষিপণ্য নির্বিঘেœ চলাচল করতে দেওয়া না হলে খাদ্য সংকট দেখা দিবে। আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হবে দেশের কোটি কোটি কৃষক। যার প্রভাব পড়বে দেশের অর্থনীতিতে।
কৃষক উন্নয়ন সোসাইটির সাধারণ সম্পাদক আবুল হাসেমের সঞ্চালনায় জাতীয় পদকপ্রাপ্ত কৃষক জাহিদুর রহমান জাহিদ, জাতীয় পদকপ্রাপ্ত হাবিবুর রহমান হাবিব,পদকপ্রাপ্ত বেলী বেগম, রেজাউল করিম রেজা, শাহিনুজ্জামান, খোরশেদ আলমসহ শত শত কৃষক এসময় উপস্থিত ছিলেন।

ট্যাগস :

হরতাল-অবরোধ কৃষিপণ্য নির্বিঘ্নে চলাচলের দাবি

আপডেট সময় : ০৩:৩১:২৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩১ অক্টোবর ২০২৩

হরতাল-অবরোধে কৃষিপণ্য নির্বিঘেœচলাচলের দাবি জানিয়েছেন কৃষক নেতারা। মঙ্গলবার (৩১ অক্টোবর) ঈশ্বরদী প্রেসক্লাবে জনাকীর্ণ সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ কৃষক উন্নয়ন সোসাইটির কেন্দ্রীয় কমিটির নেতারা হরতাল-অবরোধ প্রত্যাহার করে কৃষিপণ্য নির্বিঘেœ বাজারজাতকরণের দাবি জানান।
লিখিত বক্তব্যে কৃষক উন্নয়ন সোসাইটির সভাপতি ও জাতীয় কৃষি পদকপ্রাপ্ত কৃষক সিদ্দিকুর রহমান ময়েজ ও রফেকুল ময়েজ বলেন, কৃষি নির্ভর বাংলাদেশে হরতাল-অবরোধ করে কৃষিপণ্য তথা কৃষককে ধ্বংস করার ষড়যন্ত্র চলছে। ২০১৪ সালে টানা হরতাল-অবরোধ সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে কৃষিখাত। পরে করোনাকালীন সময়ে মূখ থুবড়ে পরে কৃষিখাত। বর্তমান সরকারের নানামূখি পদক্ষেপে কৃষিখাতকে ভগ্নদশা থেকে উত্তরণের জন্য কৃষকরা কঠোর পরিশ্রম করছে। কৃষকদের ব্যাংক থেকে কোন ঋণ দেওয় াহয়না জানিয়ে তিনি বলেন, এনজিও এর সুদসহ ঋণের কিস্তি দিতে আজ কৃষক সমাজ হিমসিম খাচ্ছে। ঠিক সে সময়ে হরতাল আর অবরোধের মতো কঠোর কর্মসূচি গ্রহন করেছে বিরোধী রাজনৈতিক জোট। এতে মারাত্বক ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে দেশের কৃষকসমাজ।
শুধুমাত্র ঈশ^রদীতেই প্রতিদিন ১০ কোটি টাকার লেনদেন হয় জানিয়ে তিনি বলেন,আন্দোলন সংগ্রাম করে কৃষক ও কৃষিপণ্যকে জিম্মি করে রাজনৈতিক নেতারা ক্ষমতায় যায়, তারা লাভবান হয়। আর ক্ষতিগ্রস্থ হয় কৃষক। হরতাল অবরোধে কৃষিপণ্য নির্বিঘেœ চলাচল করতে দেওয়া না হলে খাদ্য সংকট দেখা দিবে। আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হবে দেশের কোটি কোটি কৃষক। যার প্রভাব পড়বে দেশের অর্থনীতিতে।
কৃষক উন্নয়ন সোসাইটির সাধারণ সম্পাদক আবুল হাসেমের সঞ্চালনায় জাতীয় পদকপ্রাপ্ত কৃষক জাহিদুর রহমান জাহিদ, জাতীয় পদকপ্রাপ্ত হাবিবুর রহমান হাবিব,পদকপ্রাপ্ত বেলী বেগম, রেজাউল করিম রেজা, শাহিনুজ্জামান, খোরশেদ আলমসহ শত শত কৃষক এসময় উপস্থিত ছিলেন।